অদ্ভুদ রকম ভাবে সময় ছুটে যাচ্ছে।
আমার এখনো স্পষ্ট মনে আছে সেই ছোটবেলার স্কুল সময়কালের কথা। ক্লাস ফোর পর্যন্ত টিফিনে ২ টাকা করে দিত বাসা থেকে। স্কুল চেঞ্জ হলো হাতখরচের টাকা বাড়লো… এখনো খেয়াল আছে আমার হ্যারি পটারের ছবি ওয়ালা ব্যাগটার কথা। এইতো যেন সেদিনই মনে হচ্ছে আমার জন্য গাড়ির ছবি ওয়ালা একটা লাল গেঞ্জি আব্বু কিনে নিয়ে আসলো। অইসময় তো সেলুনে চুল কাটানোর সময় চেয়ারের হাতলে কাঠের তক্তা বসিয়ে দিত সেলুনওয়ালা….
কিভাবে যেন সময়টা চলে গেল.. একদিন হঠাৎ আবিষ্কার করলাম সেলুনে গেলে আমাকে আর কাঠের তক্তার উপরে বসা লাগছে না। আমি বড় হয়ে গেছি। আমি চেয়ারের মধ্যে বসেই চুল কাটাতে পারছি… ২ টাকার টিফিনের মান বাড়তে বাড়তে এখন বাসা থেকে কোন হাতখরচই দেয় না, নিজের খরচ চালানোর মত কিছুটা সামর্থ্য হয়ত আছে এখন। আমার জন্য বাবার এখন আর সেই গাড়ি ওয়ালা লাল গেঞ্জি আনার প্রয়োজন পরে না… পছন্দের কাপড় নিজেরটা নিজে কিনে ফেলার মত বেশ বড় হয়ে গেছি আমি…
হ্যারিপটারের ছবি ওয়ালা ব্যাগ কাধে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার সময় যাদের আংকেল বলতাম এখন ঠিক সেই অবস্থানের কাছাকাছি এসে পড়েছি…. একদিন হয়ত ঘুম থেকে উঠে আবিষ্কার করবো গায়ের চামড়ায় অনেক ভাজ পড়ে গেছে। আরেকদিন হয়ত ঘুম থেকে উঠে আবিষ্কার করবো আগের মত আর এত সুন্দর করে হাটতে পারি না…. এর পরে হয়ত একসময় আবিষ্কার করার মত কিছু আর থাকবে না…. সেদিন হয়ত আমার ঘুমও ভাঙ্গবে না….
সময় অদ্ভুদ রকম ভাবে ছুটে যাচ্ছে।