একটা সময় হঠাৎ করেই দেশে FM Radio এর একটা ক্রেজ শুরু হলো । রেডিওর কিছু কিছু প্রোগ্রাম টেলিভিশন শো এর চেয়েও জনপ্রিয় ছিলো । তরুনদের আড্ডা সেসময় রেডিওর প্রোগ্রাম নিয়েও হতো , মাল্টিমিডিয়া সেট সবে মাত্র সহজলভ্য হচ্ছে, বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠানগুলো মোবাইলের বিশেষ ফিচারে রেডিও সুবিধা আছে এমন দেখাতে লাগলো । রেডিও জকি বা RJ ছিল তখনকার সময়ের তরুনদের কাছে সেলিব্রেটি, অনেকে ফেসবুকে নিজের নামের সাথে RJ লাগিয়ে রাখত।
সেসময়ে ছোটখাট দোকানেও ১০০ টাকা দিয়ে চায়না ছোট রেডিও পাওয়া যেত, আব্বু যেদিন কিনে আনলো লাল কালারের অই পিচ্চি গানের বাক্সটা আমার তখন সেই ভাব । ক্লাসের সবাই এফএম নিয়ে কথা বলে আমারও সেই গল্পে যোগদান করা লাগবে, আগে কখনো এফএম শুনিনি, পরদিন কোন এক ছেলে এফএম এর চ্যানেল আর অনুষ্ঠান সম্পর্কে জ্ঞান দিলো, ডায়রীতে লিখে রাখলাম কোন চ্যানেলে কোন অনুষ্ঠান হবে , সানডে নাইট, লাভ গুরু, হরর সেগমেন্ট , কুয়াশা কত কত অনুষ্ঠান। রাত সাড়ে ১১ টা থেকে সব শুরু হত , তখনো রাত জাগার অভ্যাস হয়ে ওঠে নি, যত ভাল পর্বই হোক সবই অর্ধেক শোনা হয়েছে। এসব আরজে দের দেখার অনেক শখ ছিলো , কন্ঠস্বর শুনেই তখন মানুষ একেকটা চেহারা মনের মধ্যে কল্পনা করে নিতো, তারপর যখন বাস্তবে দেখত , তখন বলত হায় হায় এইটা উনি ?
ইন্টারনেটের সহজলভ্যতায় যখন মানুষ রেডিও ভুলতে বসলো তখনো হাতে গোনা কয়েকটা অনুষ্ঠান মানুষকে রেডিওতে ধরে রেখেছিলো তার মধ্যে একটা ছিলো ভুত এফ এম। বানানো গল্প হোক সত্যি গল্প হোক ভয় লাগত …… তাও শুনতাম …… জানতাম ভয় লাগবে…
অনেকদিন রেডিও শোনা হতো না, একে একে পছন্দের সেই অনুষ্ঠান গুলো বন্ধ হয়ে গেলো , ভুত এফএম ছিলো কিন্তু শোনা হতো না ।
আজকে খবর পেলাম ভুত এফ এম এর আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি টানা হয়ে গেছে , ২০১০ সালের ১৩ আগস্ট কোনরকম আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই হুট করে যে অনুষ্ঠানের সূচনা করে ছিলো ঠিক তেমনি করে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে হুট করেই এর সমাপ্তি টানা হয়ে গেলো ।
সামনের প্রজন্ম হয়ত ” বিশ্বাস করেন রাসেল ভাই ” এই লাইনটার মানে বুঝবে না । এরা ট্রল লাইন হিসেবেই ভেবে নেবে ।